ইসলামের দৃষ্টিতে – চোখ দিয়ে কী দেখলে নেকীহ্ হয়, কী দেখলে গুনাহ্ হয়!! আল্লাহ্ চাহেতো এই সব বিষয় নিয়ে আজকে কিছু আলোচনা করব ইনসাআল্লাহ্ ।

হাদীসের মতে ছয়টি জিনিস দেখলে নেকি হয়। যেমন:

১. কাবা শরিফ: কাবা শরীফের দিকে তাকালে নেকীহ্ হয়। বাস্তবে যদি কেউ কাবা শরীফের দিকে তাকায় তাহলে তার নেকীহ্ হতে থাকে। আমদের সামর্থ থাকলে কাবা ঘর জিয়ারত করবো মানে হজ্ করব ইনসাআল্লাহ্।

২. রাসুলুল্লাহ্: রাসুলুল্লাহ্ (সা:) কে কেউ দেখলে তার নেকীহ্ হতে থাকে। কিন্ত বাস্তবে তা আদৌ সম্ভব নয় কিন্তু ধ্যানের মাধ্যমে আমরা রাসুলুল্লাহ্ এর সাক্ষাত পেতে পারি।

৩. কিতাবুল্লাহ্: আল্লাহ্ তা’আলার দেওয়া কিতাব কোরআন শরীফ এর দিকে তাকালে অথবা তেলাওয়াত করলে নেকীহ্ হতে থাকে। অতএব আমরা প্রতিদিন কোরআন শরীফ তেলাওয়াত করার অভ্যাস করব।

৪. মা-বাবা: মা-বাবার দিকে নেক নজরে তাকালে নেকী হতে থাকে। আমাদের যাদের মা-বাবা বেচেঁ আছে তারা যেন এই সুযোগ মিস না করি। মা-বাবা দোয়া সন্তানের জন্য অনেক পূণ্য বয়ে আনে।

৫. আলেম-উলামা: আলেম-ঊলামাদের দিকে ভাল সম্পর্কের নিয়তে তাকালে নেকী হয়।  আলেম-ঊলামা হল রাসুলুল্লাহ্ (সা:) এর ওয়ারিস। সেই শর্তে তাদের সাথে সম্পর্ক রাখলে নেকী বৃদ্ধি পায়।

 ৬. যাকেরীন: যারা জিকির এ মসগুল থাকে তাদেরকে ভাল দৃষ্টিতে দেখতে হবে। তাহলেও নেকী পাওয়া যাবে।

তিনটি জিনিস দেখা গুনাহ্ হয়। যেমন:

১. পর নারী অথবা পর পুরুষ: হাদীসে কিছু পুরুষ দেখা নারীদের যায়েয সেই সকল পুরুষ বাদে আর সকল পুরুষ দেখা নারীদের জন্য গুনাহ্। আবার হাদীসে কিছু নারীদের দেখা পুরুষদের জন্য যায়েয । সেই সব নারী বাদের আর সকল নারী দেখা না-যায়েয মানে গুনাহ্।

২. অন্যের ধন সম্পদ: অন্যের ধন-সম্পদ লোভের নজরে দেখলে গুনাহ্ হয়।

৩. কারো বাড়ির অথবা ঘরের অন্দরে মহলে লুকিয়ে তাকানো: অন্যের বাড়ি-ঘরের সরু রাস্তা, দেওয়ালের বা দরজার সরু ছিদ্র পথ দিয়ে অন্দর মহলে লুকিয়ে তাকালে গুনাহ্ হয়।

এই কয়েকটি বিষয় আমাদের জানা অতিব জরুরী কেননা আল্লাহ্ আমাদের মনের খবর রাখেন। তিনি জানেন কোন কাজ করলে আমরা সৎ পথে থাকতে পারবো তাইতো হাদীসের মাধ্যমে এই সব বিষয় আমাদের দয়াকরে জানিয়ে দিয়েছেন যেন আমরা নেকী অর্জন করতে পারি ও গুনাহ্ থেকে বেচেঁ থাকতে পারি।

রচনায়: খতিব সাহেব।                                                                                         সংকলনে: কামরুজ্জামান

Advertisements